দোকান বন্ধ করতে বলায় গরম পানি ছুড়লেন চা–বিক্রেতা

করোনাভাইরাসের কারণে চায়ের দোকান বন্ধ করতে বলায় এক গ্রাম পুলিশের ওপর গরম পানি ছোড়ার অভিযোগে আজ সোমবার দুপুরে চা–বিক্রেতাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। নাটোরের সিংড়া উপজেলার দুর্গাপুর বাজারে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটে।সিংড়া থানা সূত্রে জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যায় দুর্গাপুর বাজারের চা–বিক্রেতা রাকিবুল ইসলাম তাঁর দোকানে চা তৈরি করছিলেন। এ সময় সুকাশ ইউনিয়নের স্থানীয় গ্রাম পুলিশ সাজেদুল ইসলাম তাঁকে সরকারি নির্দেশনা অনুসারে চায়ের দোকান বন্ধ করতে বলেন। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা–কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে রাকিবুল দোকানের কেটলির গরম পানি ওই গ্রাম পুলিশের শরীরে ছুড়ে দেন। এতে তাঁর পিঠ ঝলসে ফোসকা পড়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। রাতেই পুলিশ ওই দোকানিকে গ্রেপ্তার করে সিংড়া থানায় নেয়। আজ দুপুরে আহত গ্রাম পুলিশ বাদী হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মামলা করেন। মামলায় রাকিবুলকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে দুপুরে সিংড়া আমলি আদালতে হাজির করে পুলিশ। পরে আদালত তাঁকে নাটোর কারাগারে পাঠান।সিংড়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ইলিয়াস কবির জানান, দায়িত্বে বাধা দিয়ে সরকারি কর্মচারীকে আহত করার অভিযোগে চায়ের দোকানির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলায় তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।