‘আপত্তিকর ভিডিও মুছে না ফেলায় ব্যবসায়ী মিলনকে হত্যা’

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় ব্যবসায়ী মিলন মিয়া (২২) হত্যার রহস্য উদ্‌ঘাটনের দাবি করেছে পুলিশ। হত্যায় জড়িত অভিযোগে আটক মিলনের দুই বন্ধু শাহজাহান মিয়া (২৩) ও আবুল বাশারকে (২০) গ্রেপ্তার দেখিয়ে গতকাল রোববার নেত্রকোনার জ্যেষ্ঠ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়। তাঁরা বিচারকের কাছে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।আজ সোমবার দুপুরে কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাজহারুল করিম নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। ওসির ভাষ্য, উপজেলার কালাইকান্দি গ্রামের শাহজাহান মিয়া ও হরিনাকুড়ি গ্রামের আবুল বাশার প্রায় ছয় মাস আগে এক নারীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ সময় কাটানোর মুহূর্ত মুঠোফোনে ভিডিও করেন। আপত্তিকর ভিডিওটি শাহজাহান তাঁর কম্পিউটারে সংরক্ষণ করে রাখেন। মিলন গত শুক্রবার রাতে শাহজাহানের দোকানে বসে কম্পিউটার থেকে ভিডিওটি তাঁর মুঠোফোনে লোড করে নিয়ে যান। শাহজাহান বিষয়টি তখন লক্ষ্য করেননি। পরে রাত দুইটার দিকে মিলন তাঁর দোকানে শুয়ে ভিডিওটি দেখার সময় শাহজাহান ও আবুল তা টের পান। তাঁরা মিলনকে ডেকে ওই ভিডিও মুছে ফেলতে বলেন। কিন্তু মিলন এতে রাজি না হলে তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে আবুল ক্ষিপ্ত হয়ে মিলনের মাথা চেপে ধরেন আর শাহজাহান একটি চাকু দিয়ে মিলনের গলা কেটে হত্যা করেন। পরে লাশটি দোকানের পেছনে ফেলে রেখে তাঁরা পালিয়ে যান।