কুড়িগ্রামে নৌকাডুবিতে এখনো নিখোঁজ ৪

কুড়িগ্রামের উলিপুরের বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে ধরলা নদীতে নৌকাডুবিতে চারজন নিখোঁজ রয়েছেন। গতকাল বুধবার বিকেলে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে উদ্ধারকাজ শুরু হলেও নিখোঁজদের সন্ধান মেলেনি। স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার উলিপুর উপজেলার যমুনা রায়পাড়া গ্রামের নুর ইসলামের মেয়ে নাজমা খাতুন ও ধরলা নদী বিচ্ছিন্ন চর কলাকাটা নামানির চর এলাকার আলমগীর হোসেনের বিয়ে হয়। গতকাল বরের বাড়ি থেকে দাওয়াত খেয়ে কনেপক্ষের ৪৫ থেকে ৫০ জন নৌকায় করে বাড়ির ফেরার সময় ঝড়ের কবলে পড়েন। ধরলা নদীতে নৌকাটি ডুবে যায়। এ সময় বেশির ভাগ যাত্রী সাঁতরে কিনারায় ফিরতে পারলেও কনের বাবা নুর ইসলামসহ চারজন নিখোঁজ হন। নিখোঁজ বাকি তিনজন হলেন কামরুজ্জামান, আমেনা বেগম ও জব্বার আলী। বুড়াবুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবু তালেব বলেন, দুর্ঘটনার পরপরই উলিপুর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়। কুড়িগ্রামে কোনো ডুবুরি না থাকায় বৈরি আবহাওয়ায় উদ্ধারকাজ শুরু করা যায়নি। পরে রংপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে খবর দেওয়া হয়। আজ সকালে ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান শুরু করে। উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নদীতে অনেক স্রোত। পানিও বেড়েছে। ফলে উদ্ধারকাজ বিঘ্নিত হচ্ছে।