রুবি প্রিন্সেস বিপর্যয়: ক্ষমা চাইলেন অস্ট্রেলিয়ার মুখ্যমন্ত্রী

অস্ট্রেলিয়ায় রুবি প্রিন্সেস প্রমোদতরি বিপর্যয়ের ঘটনায় প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়েছেন দেশটির নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ান। দেশটিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বিস্তারের জন্য ব্যাপকভাবে দায়ী করা হয়েছিল রুবি প্রিন্সেস প্রমোদতরিকে। অপ্রত্যাশিত ঘটনাটিকে রাজ্য সরকারের চরম ব্যর্থতা ও ভয়াবহ ভুল বলে আখ্যায়িত করেন মুখ্যমন্ত্রী। গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের ভুল স্বীকার করে এসব কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ান। গত মার্চে ২ হাজার ৭০০ জন যাত্রী নিয়ে সিডনির বন্দর আসে বিলাসবহুল প্রমোদতরি রুবি প্রিন্সেস। প্রথমে অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও রাজ্য সরকারের বিশেষ অনুমতিতে সিডনিতে নামিয়ে দেয় ২ হাজার ৭০০ যাত্রীকে। এর মধ্যে মাত্র ১৩ জনের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করেই ছাড়পত্র দিয়েছিল রাজ্য সরকার। পরবর্তী সময়ে যাত্রীদের মধ্যে ৬৬৩ জন আক্রান্ত ছিলেন বলে জানা যায়। এ ছাড়া আক্রান্ত যাত্রীদের মধ্যে ২০ জন অস্ট্রেলিয়ায় এবং ৮ জন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মারাও যায়। অস্ট্রেলিয়ার করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য ব্যাপকভাবে দায়ী করা হয় এই রুবি প্রিন্সেস প্রমোদতরিটিকে। নতুন জনস্বাস্থ্য নীতিমালা ভঙ্গের দায় নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্য সরকারের ওপর দিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আর এ কথা জানিয়েই ক্ষমা চান মুখ্যমন্ত্রী গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ান। তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করা প্রতিবেদনে যে ভুলগুলো পাওয়া গেছে এবং এর জন্য যে ক্ষতি হয়েছে, তার জন্য আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’