মেসিকে পটানোর পরিকল্পনা করছেন কোম্যান

বার্সেলোনা কোচের দায়িত্ব নেওয়ার পরই ক্লাবে পরিবর্তন আনার অঙ্গীকার করেছেন রোনাল্ড কোম্যান। সেজন্য যে ‘বিপ্লব’ ঘটাতে হবে তা মনে করছেন না এই ডাচ কোচ। সে ক্ষেত্রে সবার আগে প্রশ্ন ওঠে বার্সায় লিওনেল মেসির ভবিষ্যত নিয়ে। চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮–২ গোলে বার্সার হারের পর থেকেই নিশ্চুপ আর্জেন্টাইন তারকা। সংবাদমাধ্যমে গুঞ্জন চলছে, চুক্তির মেয়াদ (২০২১ সাল) শেষ হওয়ার আগেই বার্সা ছাড়বেন মেসি। ৫৭ বছর বয়সী কোম্যান কাল এ নিয়ে কথা বললেন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে। বার্সা কোচ হওয়ার পর এটাই ছিল সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে তাঁর প্রথম আলাপচারিতা। যথারীতি সেখানে মেসির ভবিষ্যত নিয়ে কথা উঠেছে। কোম্যান জানিয়েছেন, ‘মেসিকে (বার্সায় থাকতে) রাজি করাতে ওর সঙ্গে কথা বলতে হবে কি না তা জানি না। সে অবশ্যই বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় এবং বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়কে যে কেউ নিজের দলেই চাইবে, প্রতিপক্ষ দলে নয়। তার সঙ্গে কাজ করতে ভালোই লাগবে কারণ সে ম্যাচ জেতায়। সে নিজের স্বাভাবিক খেলা ধরে রেখে থাকতে চাইলে খুশিই হব। তার চুক্তির মেয়াদ ফুরোতে এখনো এক বছর বাকি। অর্থাৎ সে এখনো বার্সেলোনার খেলোয়াড়। আশা করি সে এখানে আরও কিছু বছর খেলবে।’ কোম্যান নতুন কোচ হওয়ার পর বার্সা সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তোমেউ বলেছিলেন ‘কিছু ক্লাব কিংবদন্তিকে বিদায়’ দেওয়া হবে। সেখানে তিনি ৩৩ বছর বয়সী তারকা মেসির নাম অবশ্য বলেননি। তবে ৩০ বছর টপকে যাওয়া কিছু তারকার বার্সায় ভবিষ্যত নিয়ে যথেষ্ট প্রশ্ন আছে। কোম্যান কিন্তু বিষয়টিকে এভাবে দেখছেন না। ক্লাবে নতুন দিন আনতে তিনি স্কোয়াড খোলনলচে পাল্টে ফেলায় বিশ্বাসী নন। নেদারল্যান্ডসের সাবেক এ মিডফিল্ডারের ভাষ্য, ‘হ্যাঁ, পরিবর্তন তো আনতেই হবে। কিন্তু আমার মতে কোনো বিপ্লব ঘটবে না। ক্লাবের জন্য যা ভালো সেসব ভেবেই আমরা সিদ্ধান্ত নেব।’ কে থাকবে, কে যাবে এসব নির্ধারণে বয়সকে কোনো সমস্যা হিসেবে দেখছেন না কোম্যান, ‘আমি মনে করি না ৩১ বা ৩২ বছর বয়সী খেলোয়াড়েরা ফুরিয়ে গেছে। এটা নির্ভর করছে ক্লাবের হয়ে তার সাফল্যক্ষুধা ও নিজেকে নিংড়ে দেওয়ার ওপর। আমি শুধু সেসব খেলোয়াড়ের সঙ্গে কাজ করতে চাই যারা এখানে থাকতে চায়। থাকতে না চাইলে ক্লাবকে তারা বলতে পারে।’