ভারতের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ শুরু ২৮ অক্টোবর

২৮ অক্টোবর থেকে ‘এয়ার বাবল’ ব্যবস্থাপনায় আকাশপথে যোগাযোগ পুনরায় চালু হবে বলে শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের বরাতে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দুই প্রান্ত থেকে সপ্তাহে মোট ৫৬টি ফ্লাইট চলবে।

বিশেষ পরিস্থিতিতে নিয়মিত ফ্লাইট বন্ধের সময় দুটি দেশ যখন বিশেষ ব্যবস্থায় নিজেদের মধ্যে বিমান যোগাযোগ স্থাপন করে, তাকে ‘এয়ার বাবল’ বলে।

এই বিশেষ ব্যবস্থায় কারা কারা যাওয়া-আসা করতে পারবেন, তা দেশ দুটির আলোচনার মধ্য দিয়ে ঠিক হয়।

ভারত এখন ভুটান, মালদ্বীপ, আফগানিস্তান ছাড়াও মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্র-কানাডার সঙ্গে ‘এয়ার বাবল’ পরিচালনা করছে।

বাংলাদেশের বেসরকারি খাতে কাজ করা ভারতীয় নাগরিক এবং ভারতের হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে ইচ্ছুক রোগীদের সুবিধার্থে ‘এয়ার বাবল’ চালুর প্রস্তাব গত অগাস্টে ঢাকা সফরে এসে দিয়েছিলেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।

তারই ধারাবাহিকতায় দুই দেশের বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের আলোচনার ভিত্তিতে ফ্লাইটের সংখ্যা, গন্তব্য এবং ফ্লাইট পরিচালনাকারী বিমান সংস্থাগুলো নির্ধারণ হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বাংলাদেশ থেকে তিনটি বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এবং নভোএয়ার সপ্তাহে ২৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করবে।

অপরদিকে অন্য ২৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করবে ভারতের পাঁচটি বিমান সংস্থা- এয়ার ইন্ডিয়া, বিস্তারা, ইন্ডিগো, স্পাইসজেট ও গোএয়ার।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, বিমান বাংলাদেশের ঢাকা-দিল্লি-ঢাকা ও ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা রুটে, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের ঢাকা-চেন্নাইয়ের এবং নভো এয়ারের ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করার কথা রয়েছে।

অপরদিকে পাঁচটি ভারতীয় বিমান সংস্থা ঢাকা-দিল্লি-ঢাকা, ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা, ঢাকা-চেন্নাই-ঢাকা এবং ঢাকা-মুম্বাই-ঢাকা রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করবে।

করোনাভাইরাস মহামারীতে রূপ নেওয়ার পর গত ১২ মার্চ থেকে ভারত বিদেশিদের ঢোকা বন্ধে প্রায় সব ধরনের ভিসা স্থগিতের সিদ্ধান্ত জানায়; তার ধারাবাহিকতায় বন্ধ হয়ে যায় বিমান যোগাযোগও।

আকস্মিক ওই সিদ্ধান্তে বিড়ম্বনা ও দুর্ভোগের মুখে পড়েন ভারতের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভিসা গ্রহণকারী বাংলাদেশিরা।

‘এয়ার বাবল’ চালুর আলোচনার মধ্যে ৯ অক্টোবর বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য মেডিকেলসহ নয় ক্যাটাগরিতে অনলাইন ভিসা আবেদন গ্রহণ শুরুর ঘোষণা দেয় ঢাকায় ভারতীয় হাই কমিশন।

মেডিকেলের সঙ্গে অনুমোদিত ভিসাগুলোর মধ্যে ব্যবসা, কর্মসংস্থান, এন্ট্রি, সাংবাদিক, কূটনৈতিক, সরকারি, জাতিসংঘ কর্মকর্তা ও জাতিসংঘ কূটনীতিক ক্যাটাগরি রয়েছে।

এর বাইরে ভ্রমণসহ অন্যান্য ক্যাটাগরিতে ভিসা আবেদন নেওয়া ‘শিগগির’ শুরু হবে বলে জানিয়েছে হাই কমিশন।

আরও পড়ুন

ভারতের সঙ্গে বিমান চলাচলের পথ খুলছে  

মেডিকেলসহ ৯ ক্যাটাগরিতে ভিসা আবেদন নিচ্ছে ভারত