আসর মাতাচ্ছে হালকা মেজাজের আরামদায়ক পোশাক

৯ অক্টোবর ল্যাকমে ফ্যাশন উইকের চতুর্থ দিন ছিল নানান আয়োজনে জমজমাট। এই দিন উৎসবের পোশাক থেকে হালকা মেজাজের আরামদায়ক ক্যাজুয়াল পোশাকের বাহার নিয়ে এসেছিলেন ডিজাইনাররা।

‘এফডিসিআই ল্যাকমে ফ্যাশন উইক ২০২১’-এর চতুর্থ আসর শুরু হয় মিশরুর ‘অ্যান ইটারনাল সামার’-এর নান্দনিক আয়োজনে। এই লেবেলের ডিজাইনার স্বপ্না অ্যানুমোলু হাজির হয়েছিলেন পার্টির রাতের পোশাকে এক ফিউশন নিয়ে। স্বপ্নার ডিজাইন করা বেল্ট দেওয়া লম্বা হাতার বিলোয়ি ব্লাউজের সঙ্গে লেহেঙ্গা, শির পালাজো আর ওয়ান শোল্ডারড ও শিমারিং টিউনিক যেকোনো পার্টিতে দিতে পারে দুর্দান্ত লুক।

ডিজাইনার নিকিতা তাঁর ‘ক্যানভাস’ নামের সংগ্রহ রঙিন করে তুলেছিলেন শিল্পীর এলোমেলো তুলির আঁচড়ে। অবকাশ যাপনকেন্দ্র বা রিসোর্টের অলস দিনগুলোর জন্য নিকিতার এই সম্ভার হয়ে উঠতে পারে যে কারও সঙ্গী। এই ডিজাইনার তাঁর ক্যানভাসে শিল্পীর রংবাহারি আঁচড় ছাড়াও বোল্ড স্ট্রাইপ, অ্যাজটেক মোটিফ আর নাটকীয় এমব্রয়ডারি তুলে ধরেছিলেন।

ডিজাইনার শ্রুতি সনছেতিও নিয়ে এসেছিলেন ঘুরে বেড়ানোর আরামদায়ক চলতি ধারার পোশাক। তাঁর আয়োজনে নজর কেড়েছিল কাট আউট ম্যাক্সি, বোহো টায়ার্ড ড্রেস, লাউঞ্জ ওয়্যার, মিডিসহ আরও নানান হালকা মেজাজের পোশাক।

৮ অক্টোবর ল্যাকমের রাত ঝলমলিয়ে উঠেছিল কিছু খ্যাতনামা ডিজাইনারের চোখজুড়ানো আয়োজনে। ডিজাইনার ডেভিড আব্রাহাম আর রাকেশ ঠাকুর এই রাতে ল্যাকমের আসরে নিয়ে এসেছিলেন ‘ইজি টু ওয়ার’-এর বৈচিত্র্য। তাঁদের ডিজাইন করা পোশাক পরে র‍্যাম্পে হেঁটেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী দিয়া মির্জা। দিয়ার পরনে ছিল কালো বিমূর্ত প্যাচওয়ার্কের কাফতান।

এই রাতের শেষ আয়োজন ছিল ডিজাইনার রাজেশ প্রতাপ সিংয়ের। তিনি সত্য পালের ছাতার তলায় নিয়ে এসেছিলেন এক বর্ণাঢ্য আয়োজন। তাঁর রঙিন আর টেকসই এই কালেকশনের নাম ছিল ‘দ্য মাস্টার্স ওয়ার্ডস’। রাজেশ প্রতাপ সিং এই আসরে জন্ম দেন যুগান্তকারী ‘কার্বন জিরো টেনসেল ফাইবার’-এর।

ল্যাকমের তৃতীয় রজনী (৮ অক্টোবর) আরও উজ্জ্বল হয়ে ওঠে বলিউডের দুই অভিনয়শিল্পী তৃপ্তি দিমরি আর রাহুল বোসের উপস্থিতিতে। রাজেশের ডিজাইন করা কালো রঙের লেইস বডিস্যুট, প্যান্ট আর টুক্সেডো জ্যাকেটের সঙ্গে সাটিন লাপেল পরেছিলেন তৃপ্তি। আর রাহুলের পরনে ছিল কালো রঙের স্যুট।