নারায়ণগঞ্জের রসুলবাগ ‘লকডাউন’

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার রসুলবাগ এলাকা ‘লকডাউন’ করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন এ ‘লকডাউন’ ঘোষণা করে।বন্দর উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক নারীর মৃত্যুর পর স্থানীয় কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়। দাফনের তিন দিন পর আইইডিসিআরের পরীক্ষায় ওই নারীর করোনাভাইরাস পজিটিভ রিপোর্ট আসে। পরে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন ওই এলাকা ‘লকডাউন’ করার সিদ্ধান্ত নেয়। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় জানায়, শ্বাসকষ্ট ও জ্বর নিয়ে গত রোববার সিটি করপোরেশনের রসুলবাগ এলাকার ৪৫ বছর বয়সী ওই নারীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাঁকে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া পরামর্শ দেয়। কিন্তু স্বজনেরা তাঁকে বাড়িতে ফেরত নিয়ে যান। পরে অবস্থার আরও অবনতি হলে ওই নারীকে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। পরে কুর্মিটোলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য আইইডিসিআরে পাঠায়। এ বিষয়ে জেলা করোনা ফোকাল পারসন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ওই নারীর লাশ স্বজনেরা স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করেছেন। পরে আইইডিসিআরের পরীক্ষায় মৃত ওই নারীর করোনাভাইরাস পজিটিভ পাওয়া যায়। পরে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পরামর্শে রসুলবাগ এলাকা ‘লকডাউন’ ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। এ ব্যাপারে বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শুক্লা সরকার প্রথম আলোকে বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ওই নারী মারা গেছেন। করোনা পরীক্ষার এ প্রতিবেদন পাওয়ায় ওই এলাকা আজ রাত ১০টা থেকে লকডাউন করে দেওয়া হয়।